Massacre to mystery: who’s the bald headed man of the Artisan Bakery?

0
10079

I would like to begin by paying my respects to the victims of the Artisan Bakery Massacre which took place on 1st Of July 2016, where 24 people were murdered in cold blood in an attack claimed by the so-called Islamic State. This day will always be remembered as the darkest day of Bangladesh, the nation’s own personal Black Friday.

Now I’ve done my best to cover every inch of the situation and have penned several articles on social media already, and as soon as anything new developes. But today I want to ask a different question, a very important one in truth.

I don’t know if anybody else has noticed it on the day of the tragedy, before all hell broke loose of course, there was a man, a bald headed man inside the bakery that day and he was sitting next to the gunmen. I asked myself, right then who is this man? Naturally I sent out ‘feelers’ on Facebook and a lot of my friends kindly took the time to get back to me with information on the mysterious bald man. If you take a close look at the video recorded by Korean national D K Hong, you’ll understand who I am referring to. The video (link) reveals that the bald man was amongst the first hostages (including a few women and a child) who were released by the terrorists. The video also changes the dynamics of the situation considerably.

13529096_10157093554060183_1036401449170649888_n - Copy13578592_10153923142593019_1434670917_n taklu khunitakla

Two things:

First, the law enforcement authorities claims (on international media no less) that the mysterious bald headed man was rescued in a successful commando operation, whereas the video now proves that it was not the case.

Secondly, the wife of said bald man, Ms Sharmin Parvin, later claimed that the terrorists only let go of those who were able to recite the Kalimas and Surahs from the holy Quran. Ms Parvin’s words I’m afraid reek of an all too familiar stench, religious extremism. What’s more intriguing was how her husband repeatedly tried to coax the law enforcement agencies present there that day, requesting them not to shoot the bakery.

Now there hasn’t even been a peep about this anywhere in global media and I wonder why not. Had Mr Hong not recorded the aforementioned video, I may have never found out. Now according to my Facebook friends the mysterious bald man has a name, Hasnat Karim.

The man is a lecturer inside North South University, a place infamous for being breeding ground for terrorists like Nibras Islam and even those who were amongst the main instigators of the recent blogger killings (Thaba Baba Killings) in Bangladesh.

Meanwhile, The Daily Amader Shomoy in a report published on 3rd July 2016, profiled the mysterious bald headed man. Identifying him as Hasnat Karim, Amader Shomoy claimed that Hasnat Karim spent nearly twenty years abroad. During that time he gained a degree in Engineering from the UK and a Masters degree subsequently from the US. He actually returned to Bangladesh about a year and a half ago. But readers, I don’t believe that’s the whole story. I believe that there’s more, there always is.

Now I am not too keen on playing a guessing game here but the people need to know the truth. And as such it is my request to you dear readers, if you have any information on this mysterious bald man please come forward and speak.

  • I want to know who this person really is.
  • I want to understand his connection to the terrorists.
  • I want to know if Hasnat Karim is his real name or not, if not what is his real name?
  • I want to know that how is it that people around him dropped like rag dolls while he was having a smoke and socializing with the gunmen on the roof of the bakery?

I want to know how is it that he got out and the rest were slaughtered.

I am also providing a short Bengali version of the article above:

গতকাল-ই আমি আমার এক পোস্টে (লিংকঃ) প্রশ্ন তুলেছিলাম আর্টিসান বেকারীর ভেতর বসে থাকা একটা টাক মাথার লোক আছে যেই লোকটি অস্ত্রধারীদের সাথে বসে ছিলো।তাকে নিয়ে আমি প্রশ্ন তুলেছিলাম যে কে এই লোক? গতকাল থেকেই আমার ফেসবুকের ইনবক্সে অনেক বন্ধুরা এই টাক মাথার লোকের ব্যাপারে অনেক তথ্য পাঠায় এবং এই নিয়ে অনেকের সাথেও কথা বলি। আপনারা যদি কোরিয়ান ভদ্রলোক ডি কে হং এর করা ভিডিও দেখেন তাহলে বুঝবেন আমি কোন টাক মাথার লোকটার কথা বলছি। সে ভিডিওটি দেখুন এইখানে (লিংক) এখন আবার দেখা যাচ্ছে, এই টাক মাথার লোকটিকে সন্ত্রাসীরা সবার আগে কিছু মহিলা সহ ছেড়ে দিচ্ছে। মিডিয়াতে এই ছেড়ে দেবার কথা কিন্তু আসেই নি। হং নামের এই লোকটি ভিডিও না করলে তা জানতেই পারতাম না। কিন্তু এই মুহূর্তে ফেসবুকের বন্ধুরা জানাচ্ছে এই টাক মাথার লোকটার নাম হাসনাত করিম। এই লোক নর্থ সাউথ ইউনি’র টিচার। জঙ্গী নিবরাস ইসলাম এবং এর আগেও ব্লগার হত্যাকারী জঙ্গীরা ছিলো এই ইউনিভার্সিটির-ই। আমি কোনো গেস গেম খেলতে আগ্রহী না। আমি শুধু জানতে চাই সন্ত্রাসীদের সাথে এমন ঢিশটিং ঢিশটিং মহব্বত যেই লোকের, যেই লোককে সন্ত্রাসীরা ছেড়ে দিয়েছে, সেই লোকটা কে? এই টাক মাথার লোকের আসল পরিচয় কি? তাকে কেন জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে না?

Facebook Comments

Comments

comments

SHARE
Previous articleআলম, ন্যান্সি কিংবা কেকাদের নিয়ে ট্রল করাটাই যৌক্তিক
Next articleহূমায়ুনের হাতে নিহত একজন
উপরের প্রকাশিত লেখাটি আমার নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি ও ভাবনার ফলাফল। লেখাটি আপনার ভালো নাও লাগতে পারে, পছন্দ না-ও হতে পারে। আমার সাথে হয়ত আপনি একমত হবেন না কিন্তু আমি ধন্যবাদ জানাই আপনি এই সাইটে এসেছেন, আমার লেখাটি কষ্ট করে পড়েছেন আপনার সময় ব্যয় করে, এটিও পরম পাওয়া। সবার মতামত এক হতে হবে এমন কোনো কথা নেই। দ্বিমত থাকবে, তৃতীয় মত থাকবে কিংবা তারও বেশী মতামত থাকবে আবার সেটির পাল্টা মতামত থাকবে আর এইভাবেই মানুষ শেষ পর্যন্ত তাঁর নিজের চিন্তাকে খুঁজে ফেরে নিরন্তর। আর লেখাটি ভালো লাগলে কিংবা আপনার মতের সাথে দ্বন্দ্বের তৈরী না করলে সেটি আমার জন্য বড় সৌভাগ্য। আমি সেটির জন্য আনন্দিত। আপনাদের উৎসাহে, ভালোবাসাতে আর স্নেহেই এই লেখালেখির জগতে আসা। "নিঝুম মজুমদার" পাঠ শুভ হোক, আনন্দের হোক, এই চাওয়া। আপনার এবং আপনাদের মঙ্গল ও সুস্বাস্থ্য কামনা করি সব সময়।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY